বৈষম্যহীন সমাজ গঠনে ভাবনা আর কর্ম প্রচেষ্টা হোক নিরন্তর সঙ্গী ।

LAB-CDRC ( Local Area Based- Comprehensive Disabilities Rehabilitation Centre)

LAB-CDRC ( Local Area Based- Comprehensive Disabilities Rehabilitation Centre) প্রতিবন্ধী ব্যক্তিবর্গের জীবনচক্রভিত্তিক একটি সমন্বিত পুনর্বাসন মডেল এর নাম । এটি হোসাইন, এম আকবর এর সমাজ গবেষণালব্ধ একটি তাত্বিক ধারণা। তাত্বিক এ ধারণা থেকেই ওয়েব ঠিকানাটি সৃজন করা হয়েছে । মডেলটি বাংলাদেশের জাতীয় প্রতিবন্ধী উন্নয়ন ফাউন্ডেশন ও দেশের প্রশাসনিক কাঠামোর বিবেচনায় গঠিত হয়েছে । মডেলটি তাত্ত্বিকভাবে গঠিত হওয়ার পর এখন পর্যন্ত জাতীয়ভাবে সরকারের স্বীকৃতি না পাওয়ায় মডেল এর সম্পূর্ণ অনুসরণ না করে স্থানীয় পর্যায়ে (চট্টগ্রাম জেলার হাটহাজারী পৌরসভা ও উপজেলার ইউনিয়নগুলো এবং পরবর্তীতে ৫টি উপজেলা ও ২টি পৌরসভা) সরকারী পরিপত্রের আলোকে প্রজীপু (প্রতিবন্ধী ব্যক্তিবর্গের জীবনচক্র ভিত্তিক পুনর্বাসন ) নামে প্রকল্প বাস্তবায়ন কাজ চলছে ।
ড. মো: আকবর হোসাইন, পিতা- মো: আব্দুস সাত্তার মাস্টার, ৮৬০ বি/ এম.এম আলী রোড, মেহেদীবাগ, চট্টগ্রাম, বাংলাদেশ । তিনি ১৯৭২ সালের ১ জানুয়ারী চট্টগ্রাম জেলা সন্দ্বীপ উপজেলাধীন কাটগড় ইউনিয়নে জন্ম গ্রহণ করেন । চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তিনি লোক প্রশাসন বিভাগে অনার্সসহ মাস্টার্স ডিগ্রি এবং জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এলএল.বি ডিগ্রী অর্জন করে অতপর আমেরিকান ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ শাখা থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃ-বিজ্ঞান বিভাগের প্রফেসার ড. জাহেদুল ইসলামের অধীনে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের পুনর্বাসন বিষয়ে পিএইচ.ডি ডিগ্রী অর্জন করেন ।

প্রজীপু প্রকল্প কার্যক্রমের সারসংক্ষেপ

প্রকল্প ধারণার উৎপত্তি ও বিকাশ :   প্রজীপু উদ্যোগ / প্রকল্পটি প্রতিবন্ধিতা বিষয়ক সমাজ গবেষণাভিত্তিক LAB-CDRC নামের মডেল ধারণায় প্রণীত ও বেসরকারী স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার সহযোগিতায় স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানসমূহের মাধ্যমে বর্তমানে বাস্তবায়ন কার্যক্রম চলমান ;
প্রজীপু উদ্যোগ / প্রকল্পের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য :   দেশের স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানসমূহের নিজস্ব অর্থায়নে নিজ নিজ এলাকার প্রতিবন্ধী ব্যক্তির জীবনচক্রভিত্তিক পু্নর্বাসন ও অধিকার নিশ্চিত করে তাদের সমাজে মূল স্রোতে সম্পৃক্ত করা ।
প্রজীপু প্রকল্পের উদ্যোগ কে গ্রহণ করবে ? কেন গ্রহণ করতে হবে ? কার অর্থায়নে এটি গৃহীত হবে ?   প্রজীপু উদ্যোগটি দেশের স্থানীয় প্রতিষ্ঠানসমূহ ( মৌলিকভাবে সিটি কর্পোরেশন / পৌরসভা/ ইউনিয়ন পরিষদ গ্রহণ করবে এবং ক্ষেত্র বিশেষে উপজেলা পরিষদ ও জেলা পরিষদ সহায়ক প্রকল্প গ্রহণ করবে) গ্রহণ করবে ।
জাতিসংঘ সনদ (UNCRPD), প্রতিবন্ধিতা বিষয়ে বিদ্যমান আইন ও বিধিমালা এবং তৎপ্রেক্ষিতে স্থানীয় সরকার বিভাগ কর্তৃক জারীকৃত প্রকল্প গ্রহণ বিষয়ক পরিপত্রের নির্দেশনায় প্রকল্প গ্রহণ আবশ্যক । এ ক্ষেত্রে প্রজীপু টেকসই ও গবেষণাভিত্তিক প্রকল্প বিধায় অগ্রাধিকার হিসেবে বিবেচ্য ।
স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানসমূহ নিজস্ব আয় (রাজস্ব আয় / ভূমি হস্তান্তর কর/এলজিএসপি/ উপজেলা উন্নয়ন তহবিল ইত্যাদি খাত) থেকে অর্থায়ন করবে ।

প্রজীপু কার্যক্রম:

  • ক. সরকারী বিধি-বিধান ও পরিপত্রের আলোকে স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানসমূহ কর্তৃক প্রকল্প গ্রহণ ;
  • খ. প্রতিবন্ধী ব্যক্তির ব্যক্তিগত তথ্য, প্রাথমিকভাবে সেবার চাহিদা (শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কর্ম প্রশিক্ষণ, কর্মসহায়তা, ক্রীড়া-বিনোদন, আশ্রয়ন ও অধিকার) নিরুপণ ও সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান চিহ্নিত করন ;
  • গ. প্রজীপু সফটওয়ারে সংগ্রহীত তথ্যাদি সংরক্ষণ ;
  • ঘ. স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানের জনপ্রতিনিধি কর্তৃক নির্দিষ্ট ছকে বার্ষিক পরিকল্পনায় ( ম্যানুয়েলি এবং অনলাইনে) ব্যক্তি, সেবার চাহিদা ও প্রতিষ্ঠান মনোনয়ন ;
  • ঙ. মনোনীত ব্যক্তিদের সেবাদান ও কার্যক্রম ( অনলাইনে ও প্রজীপু বইতে) এন্ট্রি করন;
  • চ. প্রশাসনিক কাঠামোর ভিত্তিতে অনলাইনে মাসিক ও বার্ষিক প্রতিবেদন প্রদান ব্যবস্থা ;

প্রজীপু প্রকল্পের সেবা ও অধিকার ভিত্তিক (উল্লেখযোগ্য) কার্যক্রম :

শিক্ষা বেইল/ডেইজি ইশারা বিশেষ একীভূত শিশু বিকাশ অন্যান্য সহায়ক উপকরণ
স্বাস্থ্য ফিজিও অকো স্পিচ সাইকো কাউন্সিলিং অন্যান্য সহায়ক উপকরণ
কর্মপ্রশিক্ষণ সক্ষমতা বিবেচনায় উপযোগিতা ভিত্তিক ট্রেডে প্রশিক্ষণ
কর্মসহায়তা আত্ন কর্মসংস্থান পুজিঁ ঋণ কর্ম নিয়োগ অন্যান্য কর্ম সহায়ক উপকরণ
ক্রীড়া-বিনোদন ক্রীড়া (শিশু) বিনোদন মূলক কার্যক্রম ক্রীড়া উপকরণ দিবস পালন অন্যান্য
আশ্রয়ন সম্পূর্ণ নিরাশ্রয় ব্যক্তিকে আশ্রয়
অধিকার ভাতা শিক্ষা উপবৃত্তি সুবর্ণ কার্ড/সনদ ভূ-সম্পত্তি/ ইভটিজিংসহ সকল প্রকার আইনি সহায়তা অন্যান্য

প্রকল্প কার্যক্রমের সুবিধা :

প্রতিষ্ঠান সমূহের নিজস্ব জনবল দিয়ে বিশেষত প্রকল্পটি ম্যানুয়েলি ও অনলাইনভিত্তিক হওয়ায় পরিষদের উদ্যোক্তার প্রশিক্ষণের মাধ্যমে প্রকল্প বাস্তবায়ন সম্ভব । এ ছাড়া, বাইরের কোন সাহায্য ছাড়া নিজস্ব অর্থায়নে, সুনির্দিষ্ট ও ফি বছর পরিকল্পনায় সফলভাবে এ প্রকল্প কার্যক্রম সম্পাদন সম্ভব হবে ।

বাস্তবায়নাধীন প্রকল্প কার্যক্রম :

চট্টগ্রাম জেলার বিভিন্ন উপজেলা, পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদে প্রজীপু প্রকল্প কার্যক্রম চলছে ।

বেসরকারী স্বেচ্ছাসেবা সংস্থাসমূহের সম্পৃক্ততা :

বেসরকারী স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা সায়ডার (সোস্যাল ইনষ্টিটিউশন ফর ডেভেলাপমেন্ট এন্ড রিসার্চ) এর সমন্বয়ে এ প্রকল্প কার্যক্রমে সহযোগিতায় রয়েছে ব্রাইট বাংলাদেশ ফোরাম, উৎস, অপকা, ডিডিআরসি, সংশপ্তক, মনীষা, স্বপ্নীল, নওজোয়ান ও সিডিডিও’র ন্যয় স্থানীয় বেসরকারী সংস্থাসমূহ ।

ফলাফল ও প্রভাব :

  • ১। ধরণ ও চাহিদাভিত্তিক সকল প্রতিবন্ধী ব্যক্তির সেবা এবং অধিকার নিশ্চিত হবে ;
  • ২। দেশের স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানসমূহ কর্তৃক এবং প্রতিবন্ধী উন্নয়ন ফাউন্ডেশন কর্তৃক ফি বছর টেকসইরুপে বার্ষিক বাজেট ও কর্মপরিকল্পনা ( ম্যানুয়েলি ও অনলাইনে ) এবং পঞ্চবার্ষিকী কর্ম পরিকল্পনা গ্রহণ করা যাবে ;
  • ৩। জাতিসংঘ সনদের আলোকে ৪(চার) বছর অন্তর প্রতিবেদন প্রেরণ, দেশের বিদ্যমান আইন ও বিধিমালার সাক্ষাৎ বাস্তবায়নের মাধ্যমে (ম্যানুয়েলি ও অনলাইনে) প্রতিবেদন প্রদানের ব্যবস্থা রয়েছে ;
  • ৪। এসডিজি’র লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সহায়ক হবে ; সর্বোপরি
  • ৫। প্রতিবন্ধী জনগোষ্ঠির সমাজের মূল স্রোতে সম্পৃক্ত হয়ে মানবিকতার বৈষম্যরোধে ও রাষ্ট্রের উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে এ প্রকল্প ব্যপকমাত্রায় সক্ষম হবে ;

প্রজীপু প্রকল্প স্থায়ী করনে করণীয়

  • ১. প্রকল্পের চলমান এ ব্যবস্থাকে সদাশয় সরকার কর্তৃক স্বীকৃতি প্রদানপূর্বক দেশব্যাপী প্রকল্প চালুর জন্য সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে স্থানীয় সরকার বিভাগের সাথে সমন্বয় করে সরকারী আদেশ জারীকরণ ;
  • ২. প্রজীপু অন্যান্য সেবার মধ্যে শিক্ষা ও স্বাস্থ্য সেবায় Need Assesment এর ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়/বিভাগের সরকারি আদেশ জারী করন ;
  • ৩. স্থানীয় সরকার ( জেলা পরিষদ, সিটি কর্পোরেশন, উপজেলা পরিষদ, পৌর পরিষদ ও ইউনিয়ন ) প্রতিষ্ঠানসমূহের জন্য পৃথক পৃথক পরিপত্র জারী এবং এ প্রকল্পে ব্যয় নীতিমালাকে প্রয়োজনীয় ব্যাখ্যাসহ অধিকতরমাত্রায় উদারীকরন ;
  • অথবা
  • ৪. জাতীয় প্রতিবন্ধী উন্নয়ন ফাউন্ডেশন বা স্থানীয় সরকার বিভাগ কর্তৃক প্রকল্পটির পূন: পাইলটিং করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা যেতে পারে ;